কয়েকবার ধর্ষন করে ডাক্তার মোমিন

হবিগঞ্জ এর চুনারুঘাটে স্বামী পরিত্যক্ত সুন্দরী নারীর সঙ্গে পরকিয়ায় জড়িয়ে নিয়মিত দৈহিক সম্পর্ক স্থাপনের জন্য তার ঘরে যেতেন হাসপাতালের আরএম ডাঃ মোমিন উদ্দিন চৌধুরী ।
বিয়ের প্রলোভন দিয়ে বার কয়েক ধর্ষন করেন বলে জানান ভিকটিম। গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে পৌর শহরের উত্তর বাজার ওই নারীর ভাড়াটে বাসায় ধরা পড়ার পর তাকে গণধোলাই দিয়ে আটক করে রাখে স্থানীয়রা। এ সময় যুবতি ইজ্জতের ভয়ে আটক ডাক্তারের বিরুদ্ধে মামলা না করায় তাকে পৌরসভার কাউন্সিলর আব্দুল হান্নানের জিম্মায় দিয়ে বিষয়টি সালিশের মাধ্যমে মীমাংসা করার প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়। কিন্তু ২দিন পার হলেও কোন প্রকার সন্তোষ জনক বিচার না পেয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। সুন্দরী নারী (২২) পৌর শহরের উত্তর বাজার বাসায় ভাড়াটে থাকেন। ওই নারী প্রায় সময় চিকিৎসার সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে মোবাইলে যোগাযোগ করতেন ডাক্তার মোমেনের সাথে। এ সুবাদে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এক পর্যায় ডাক্তার মোমিন উদ্দিন পরকিয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়েন। এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার রাতে ওই গৃহবধূর বাসায় দৈহিক সম্পর্কে জড়ালে স্থানীয় লোকজন তাকে আটক করেন।
ভিকটিম জানান, আমাকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ডাক্তার মমিন কয়েকবার ধর্ষন করেন। বিয়ের জন্য চাপ সৃষ্টি করলেই তিনি বিভিন্ন হুমকি দেন। চুনারুঘাট থানার ওসি শেখ নাজমুল হক বলেন ভিকটিম নিজে এসে অভিযোগ দিয়েছে। তদন্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।