ডেঙ্গু সনাক্তকরণ কিট উদ্ভাবনের আশ্বাস গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের।

373
গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ফটক।
গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ফটক।

মেহেদী /গণ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিঃ
করোনা সনাক্তকরণ কিট উদ্ভাবনের পর এবার প্রয়োজনে ডেঙ্গু সনাক্তকরণ কিট উদ্ভাবনেও কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র।
বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) সন্ধ্যায় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এমন সম্ভাবনার কথা জানান প্রতিষ্ঠানটির ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, ‘আমাদের করোনা পরীক্ষার কিটের নানাবিধ গুরুত্ব রয়েছে। এখন করোনা চলছে। সামনে যদি ডেঙ্গু আসে, তাহলে একশ থেকে দুইশো টাকায় ডেঙ্গুর কিট দিয়ে দেব। এ ছাড়া আমাদের বহু শিক্ষিত ছেলেরা গবেষণার কাজে বাইরে আছে। এটার ফলে তারা দেশে আসবে। অামাদের গবেষণার ফিল্ড সমৃদ্ধ হবে।’

ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর কর্তৃক গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবনকৃত করোনা সনাক্তকরণ কিট সরকারিভাবে যাচাই এর অনুমতি দেয়ার পর সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি। এ সময় তিনি অধিদপ্তর এর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মাহবুবুর রহমান কে ধন্যবাদ জানান। কিট পরীক্ষার অনুমতির বিষয়ে তিনি বলেন, ‘দুর্ভাগ্যবশত প্রধানমন্ত্রী বিষয়টা বুঝলেও আমাদের অনেক আমলারা কিটের গুরুত্ব বুঝতে দেরী করে ফেলেছে। সিডিসি এটার গুরুত্ব বুঝে আগেই চেয়ে পাঠিয়েছে। সম্ভাবনা না থাকলে তো তাঁরা পয়সা খরচ করতো না।’

বিভিন্ন আমলাতান্ত্রিক জটিলতা পার করে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবনকৃত করোনা পরীক্ষার কিট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) পরীক্ষার অনুমতি দিয়েছে ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর। বৃহস্পতিবার চিঠির মাধ্যমে অনুমতি প্রদানের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে তারা।